রবিবার, ৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

সারাদেশে ৩ দিনের অবরোধের ডাক দিল জামায়াত

বিএনপির পর আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে দেশব্যাপী তিন দিনের লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জামায়াত। ৩১ অক্টোবর এবং ১ ও ২ নভেম্বর সারা দেশে সড়ক, রেল ও নৌপথ অবরোধের কর্মসূচি পালন করবে সংগঠনটি। আজ সোমবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা এ টি এম মাছুম এই কর্মসূচির ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে এ টি এম মাছুম বলেন, ২৮ অক্টোবর রাজধানী ঢাকায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ও বিএনপিসহ সরকারবিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল মহাসমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করে। দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশের কর্মসূচি বাস্তবায়নে সহযোগিতার পরিবর্তে নেতা-কর্মীদের সমাবেশে আসার পথে পথে বাধা প্রদান করে। সমাবেশে আসা নেতা-কর্মীদের গাড়ি থেকে নামিয়ে তল্লাশি করে এবং বাস, লঞ্চ, ট্রেন থেকে নামার পর গণহারে গ্রেপ্তার করে।

জামায়াতের এই নেতা বলেন, বিরোধী দলের শান্তিপূর্ণ মহাসমাবেশে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা হামলা করে এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী টিয়ার গ্যাস, গুলি ও বেধড়ক লাঠিপেটা করে মহাসমাবেশ পণ্ড করে দেয়। পুলিশের টিয়ার গ্যাস এবং গুলির আঘাতে সাংবাদিক ও বিএনপির নেতা-কর্মীসহ চারজন নিহত এবং কয়েক হাজার নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। মহাসমাবেশ ও হরতালকে কেন্দ্র করে গত কয়েক দিনে সারা দেশে জামায়াতে ইসলামীসহ বিরোধী দলের প্রায় দুই হাজার নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মাওলানা মাছুম আরও বলেন, ‘সরকারের পদত্যাগ, আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করার লক্ষ্যে কেয়ারটেকার সরকারব্যবস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠা, আমিরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমানসহ গ্রেপ্তার সকল রাজনৈতিক নেতা ও আলেম-ওলামার মুক্তি, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধগতি রোধ, ২৮ অক্টোবর বিরোধী দলের মহাসমাবেশে হামলা, সাংবাদিক ও নেতা-কর্মীদের হত্যা এবং সরকারের লেলিয়ে দেওয়া সন্ত্রাসীদের বিভিন্ন স্থানে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও নৈরাজ্য সৃষ্টির প্রতিবাদে আগামীকাল ৩১ অক্টোবর এবং ১ ও ২ নভেম্বর সারা দেশে সড়ক, রেল ও নৌপথ অবরোধের কর্মসূচি ঘোষণা করছি। দেশের বৃহত্তর স্বার্থে ঘোষিত অবরোধ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য তিনি জামায়াতে ইসলামীর সর্বস্তরের জনশক্তি এবং দেশবাসীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ