রবিবার, ৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

জগন্নাথপুরে এম এ মান্নানের নৌকার নির্বাচনী সভায় জনসমুদ্রে পরিনত।

মো,আলী হোসেন খান:

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়নের সরকার। দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে শেখ হাসিনা সরকারকে ফের নির্বাচিত করতে হবে। শেখ হাসিনার নির্দেশনায় এ উন্নয়নে আমার অংশীদারত্ব রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি শেষ বয়সে রাজনীতিতে এসেছি৷ আগামী ৭ জানুয়ারি আমার শেষ নির্বাচন। এর আগে গত ১৫ বছর সৎ জ্ঞানে এ আসনে আমি জনসেভা করেছি। আমার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে আগামী নির্বাচনে ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করুন।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বেলা ২ টায় জগন্নাথপুর পৌর পযেন্টে জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কর্তৃক আয়োজিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ- ৩ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আলহাজ্ব এম এ মান্নান এমপি’র সমর্থনে বিশাল সমাপণী জনসভায় তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। নির্বাচনী এই জনসভা জনসমুদ্রে পরিনত হয়েছে।

এম এ মান্নান বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের ১৫ বছরের শাসনাসলে দেশে অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে, যা অতীতে কোনো সরকার পারেনি। তা সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার দূরদর্শি রাজনীতির কারণে। শেখ হাসিনা আমাকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর দায়িত্ব দেন। শেখ হাসিনা বললেন, গ্রামের মানুষ সুযোগ পাচ্ছেনা, গ্রাম বঞ্চিত হচ্ছে। তিনি গ্রামকে শহরে রূপান্তর করার উদ্যোগ নেন। তাই গ্রাম হচ্ছে শহর। আওয়ামী লীগের শাসনামলে সরকারি উদ্যোগে দেশে ৮ লাখ গৃহ নির্মাণ হয়েছে, এতে বাসস্থান পেয়েছে ৫০ লক্ষ মানুষ। ভবিষ্যতে আরো গৃহ নির্মাণ করা হবে। সারাদেশে ৫৬০টি মডেল মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে, অসংখ্য মন্দির হয়েছে। তিনি বলেন, রানীগঞ্জ সেতু হওয়ায় জগন্নাথপুরের গুরুত্ব বেড়েছে৷ আগামীতে জগন্নাথপুরে বাইপাস সড়ক ও উড়াল সেতু করার চিন্তাভাবনা করছি। তিনি বলেন, আমাদের নিজেদের আয়ে পদ্মাসেতু হয়েছে, বঙ্গবন্ধু টানেল হয়েছে।

সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কমিটির সদস্য সিদ্দিক আহমেদ এর সভাপতিত্বে ও জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আজিস সামাদ ডন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সাধারণ সস্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট সৈয়দ শামিম আহমদ,জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি মিজানুর রশীদ ভূঁইয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যাপক আমিনুল হক চুন্নু, জাতীয় শ্রমিক লীগ জগন্নাথপুর উপজেলা শাখা সভাপতি নুরুল হক, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি কামাল উদ্দিন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আবুল হোসেন লালন, সহ সভাপতি সাইফুল ইসলাম রিপন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া খানম সাথী, ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক শেরীন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেক লীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব, পৌর স্বেচ্ছাসেক লীগ সভাপতি, ছালিক আহমেদ পীর, জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাফরোজ ইসলাম মুন্না, কাউন্সিলর শফিকুল হক, জগন্নাথপুর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল মুকিত, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মান্না রায়, জগন্নাথপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি হাসান আদিল, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা তারেক আহমেদ, জগন্নাথপুর পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি মিসবাহ উদ্দিন।

শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেযারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম।

সভায় উপস্থিত ছিলেন- যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুধাংশু শেখর দাস, সহ সভাপতি সাদাত মান্নান, সাধারণ সম্পাদক হাসনাত হোসেন, জগন্নাথপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা লুৎফুর রহমান, বদরুল ইসলাম, আব্দুল জব্বারসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মহিলা লীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ