রবিবার, ৩রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

জগন্নাথপুরে ৯টি চোরাই গরু সহ একজন গ্রেফতার।

মো,আলী হোসেন খান ::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর ৯টি চোরাই গরু সহ একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।জানা যায়, গত ০৩ ফেব্রুয়ারী মিরপুর ইউনিয়নের হাছন ফাতেমাপুর গ্রামের তছর আলীর ছেলে নুর উদ্দিনের গোয়াল ঘর থেকে গভীর রাতে ০১টি ন্যাড়া সাদা (মাটিয়া) রংয়ের গাভী গরু, ০১টি লাল রংয়ের ডেকা বাছুর গরু, ০১টি কালো ও লাল রংয়ের ডেকা গরু চুরি হয়েছে হয়। গরু চুরির ঘটনায় নুর উদ্দিন জগন্নাথপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। জগন্নাথপুর থানার ওসি মো, আমিনুল ইসলামের নির্দেশে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এসআই জিন্নাতুল ইসলাম তালুকদার সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান পরিচালনা করিয়া

গতকাল ৮ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার বিকালে জগন্নাথপুর থানাধীন উত্তর গড়গড়ি আতিক মিয়ার বসত বাড়ীর গোয়াল ঘর হইতে বাদীর চোরাইকৃত ০৩টি গরুর মধ্যে ০২টি গরুসহ আরো বিভিন্ন লোকের চুরি হওয়া ০৭টি গরু উদ্ধার করা হয়।

এবং এই গরু চুরির ঘটনায় জড়িত হাজী আব্দুস ছত্তারের ছেলে মোঃ ইরন মিয়া (৪৫)কে গ্রেফতার করার পর সে জানায় বাদীর ০৩টি গরুসহ অন্যান্য আরো ০৭টি গরু তার সহযোগী পলাতক আসামী আতিক মিয়া ও রাজিক মিয়া সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ জনদের সহযোগীতায় চুরি করিয়াছে বলিয়া জানায়। গ্রেফতারকৃত আসামীসহ পলাতক আসামীরা আন্তঃ জেলা চোর চক্রের সদস্য। তারা অনেকদিন যাবৎ বিভিন্ন এলাকা হইতে গরু চুরি করিয়া অন্য এলাকায় বিক্রয় করিয়া আসিতেছে। বাদী মোঃ নুর উদ্দিন এর দায়েরকৃত এজাহারের প্রেক্ষিতে জগন্নাথপুর থানার মামলা নং- ০৬। উদ্ধারকৃত চোরাই
০৯টি গরুর মূল্য অনুমান ৩,৮৫,০০০/- (তিন লক্ষ পচাশি হাজার) টাকা। জগন্নাথপুর থানার এসআই জিন্নাতুল ইসলাম তালুকদার বলেন আসামীকে সুনামগঞ্জ জেল হাজতে পেরন করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ