বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্নভাবে হয়রানির প্রতিবাদে গ্রামবাসীর তীব্র নিন্দার ঝড়

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মিথ্যা মামলায় বিভিন্নভাবে গ্রামের সাধারণ মানুষকে হয়রানির প্রতিবাদ জানিয়েছে গ্ৰামবাসী।

উপজেলার ৮ নং আশারকান্দি ইউনিয়নের ছোট শেওরা গ্রামের সহজ সরল মানুষদের উপর মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছে বড় শেওরা গ্রামের অনুকূল সরকার সহ কিছু দুষকারীরা। গ্রামবাসীর উপর বারবার অন্যায় ভাবে অত্যাচারের টিম রুলার চলায়
গ্রামবাসীর মধ্যে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

গত ৬ মার্চ বুধবার বিকালে ছোট শেওরা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস মাস্টার সাহেবের বাড়িতে আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুর রহমান লেচুর সভাপতিত্বে গ্রামের মুরুব্বীয়ান, যুবসমাজ, ছাত্রসমাজ, কৃষক শ্রমিক মেহনতি মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণি ও পেসার শতাধিক লোকের উপস্থিতে মিথ্যা মামলাসহ নানা ভাবে হয়রানি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তথ্য অনুসন্ধানকালে গ্রামবাসী জানান,
বড় শেওরা গ্রামবাসী দীর্ঘদিন ধরে সংখ্যালঘু, আওয়ামীলীগ এর দোহাই দিয়ে এক মৌজার গরু অন্য মৌজায় জোরপূর্ব নিয়ে তাদের বাড়িঘর রাস্তাঘাট, ফসলাদি বিনষ্ট করে। তাদের গরু রাখাল বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গিতে অশ্লীল গান গায়, আমাদের গ্রামে মহিলা ও ছাত্র-ছাত্রীসহ নানা বয়সী মানুষদের সাথে টিটকারি মশকারিসহ বিভিন্নভাবে গ্রামের ভাবমূর্তি নষ্টসহ আমাদের উপর অন্যায় অত্যাচারের মাত্রা বাড়ায়।

এছাড়াও গত ২ ফেব্রুয়ারী শেওরা গ্রামের মৃত রমেশ সরকারের ছেলে অনুকুল সরকার
ছোট শেওরা গ্রামের বারবার নির্বাচিত ইউপি সদস্য সহ গ্রামের গণ্যমান্য বয়োজ্যেষ্ঠ শালিশি ১৫ জন সহজ সরল মুরুব্বীদের আসামি করে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে জগন্নাথপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ।ঐ সাধারণ ডায়েরির প্রেক্ষিতে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ নন এফেয়ার ১০৭ ধারায় মামলা রেকর্ড করে সুনামগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করেন।
গ্রামবাসী আরও জানান, অনুকুল সরকার অবৈধ লাভের আশায় গ্রামের ইউপি সদস্য সহ সাধারণ নিরীহ মানুষদের উপর এই মিথ্যা মামলা দায়ের করায় আমরা গ্রামবাসী এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এই বিষয়ে গ্রামের ইউপি সদস্য আলী হায়দার বলেন, আমাদের গ্রামের মালিকানা ও মসজিদের ভুমির উপর দিয়ে আমাদের গ্রামবাসী মানুষ চলাচলের জন্য রাস্তা নির্মাণ করি।
বড় শেওরা গ্রামের মানুষ আমাদের ব্যক্তি মালিকানা ভূমির উপর দিয়ে ছোট শেওড়া গ্রামের মানুষ চলাচলের রাস্তায় বড় সেওরা গ্রামবাসী ও তাদের হাল গরু জোরপূর্বক চলাচল করে আমাদের রাস্তার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সহ তাদের গরু রাখাল বিভিন্ন ফসলাদির ক্ষতি সাধনসহ তাদের রাখাল আমাদের মহিলা, ছাত্র-ছাত্রীদেরকে নানা অঙ্গভঙ্গিতে টাট্রা বিদ্রুপ করে আমাদেরকে অব্যাহত হুমকি দিয়ে আসছে। তাদের গরু চরানোর পশ্চিমের বিরাট পতিত জায়গা থাকা সত্যেও তারা ইচ্ছাক্ষিত ভাবে আমাদের উপর জুলুম নির্যাতনের স্টিম রোলার চালিয়ে যাচ্ছে।

এর প্রতিবাদ করায় তারা আমরা আওয়ামী লীগ থাকা সত্ত্বেও আমাদেরকে বিএনপি বলে এবং তারা নিজেদেরকে আওয়ামীলীগ ও সংখ্যা লঘু দাবি করে এ অমানবিক নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে।

গ্রামবাসী আরো জানান,গ্রামের বয়োজ্যেষ্ঠ মুরুব্বীয়ান ইউপি সদস্য সহ সাধারণ নিরীহ মানুষদের উপর এই মিথ্যা মামলা দায়ের করায় গ্রামবাসী এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।
এই বিষয়ে অনুকুল সরকার বলেন সরকারি রাস্তা দিয়ে গরু নিয়ে যেতে বাঁধা দেওয়ায় আমি গ্রামবাসীর পক্ষে মামলা দায়ের করি।

নিন্দা ও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন,শহিদুর রহমান লেছু,কদ্দুস মাস্টার, আব্দুল মতিন,মতছির মিয়া,মাস্টার লিলু মিয়া,সুরত মিয়া,হামদু মিয়া,ইউপি সদস্য আলী হায়দার,হাজ্বী আব্দাল হোসেন, আলা মিয়া,জিলু মিয়া,কউসর মিয়া,মাসুক মিয়া, জাহাঙ্গীর মিয়া,সাহাঙ্গীর মিয়া,ফয়সল মিয়া, আজিম উদ্দিন, মশাহিদ আলম,নুরুল ইসলাম, আনোয়ার মিয়া,আংগুর মিয়া,গেদু মিয়া,হিরণ মিয়া,আকসার মিয়া,ইমন মিয়া,সমরাজ আলী,মাহবুব আলম,মনসুর মিয়া,সিপন মিয়া,গিয়াস উদ্দিন,বেলাল মিয়া,মুক্তার মিয়া,কয়ছর মিয়া,সাজাদ মিয়া,আবদাল মিয়া,আলাই মিয়া,নুর ইসলাম, গয়াছ মিয়া,কয়েছ মিয়া,মাহি আহমদ,রুপন মিয়া,আহমদ মিয়া,দিলাবর মিয়া,রুবেল মিয়া,রব্বানী মিয়া,রুবেল মিয়া,আজাদ মিয়া,ময়ুর মিয়া,খালেদ মিয়া,মজলু মিয়া, খলিল মিয়া,পারভেজ মিয়া,নাহিন মিয়া,টিটু মিয়া,সুজা মিয়া,আতিক মিয়া,বিপ্লব মিয়া,সমসর মিয়া,সহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ