সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

চাকরি ছাড়লেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ৫৭ কর্মকর্তা

হঠাৎ করেই একযোগে বাংলাদেশ ব্যাংকের চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন ৫৭ জন কর্মকর্তা। পদত্যাগকারীদের মধ্যে রয়েছেন একজন উপপরিচালক ও একজন অফিসার। বাকি ৫৫ জন সহকারী পরিচালক। তাদের মধ্যে ৪৮ জনের পদত্যাগ কার্যকর হবে আজকে। এর আগে এ গত ৩১ মার্চ, ১৫ ও ১৬ এপ্রিল একজন করে, ১৮ এপ্রিল ২ জন এবং ২১ এপ্রিল ৪ জনের পদত্যাগ কার্যকর হয়েছে।

গত মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এক অফিস আদেশে এই তথ্য জানানো হয়। ইস্তফা দেয়া এসব কর্মকর্তার অধিকাংশই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। এছাড়া খুলনা ও বরিশাল অফিসে তিনজন করে, সিলেট অফিসে দুইজন, মতিঝিল, চট্টগ্রাম ও রংপুর অফিসে একজন করে কর্মরত ছিলেন।

জানা গেছে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসসহ (বিসিএস) অন্য চাকরিতে যোগ দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চাকরি ছেড়েছেন তারা। কিন্তু কয়েক বছর আগেও বিসিএস, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার মতো চাকরি ছেড়ে অনেকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে আসতেন। হঠাৎ সেই চিত্র পাল্টে গেছে।

২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক হিসেবে যোগদানের পর অ্যাকাডেমিক রেজাল্টের ভিত্তিতে চারটি অতিরিক্ত ইনক্রিমেন্ট দেয়া হতো। ২০১৯ সালের এডি ব্যাচ থেকে তা বন্ধ করে দেয়া হয়। ২০২২ সালের আগ পর্যন্ত তিন বছর পূর্ণ হলে পদ খালি থাকা সাপেক্ষে পরবর্তী ধাপে পদোন্নতির যোগ্য হতেন কর্মকর্তারা। এখন পদ খালি থাকলেও চাকরির বয়স পাঁচ বছর না হলে পদোন্নতি পান না।

আগে যোগদানের পর ৯ মাসের ফাউন্ডেশন প্রশিক্ষণ করানো হতো। এখন এক থেকে তিন মাসে নামিয়ে আনা হয়েছে। আবার এই প্রশিক্ষণে ৮০ শতাংশ নম্বর পেলে অতিরিক্ত একটা ইনক্রিমেন্ট দেয়া হতো। সেটিও এখন বন্ধ। আর সরকারি চাকরি পঞ্চম গ্রেডে প্রতিমাসে ৪৫ হাজার টাকা কার মেইনটেন্যান্স ভাতা দেয়া হলেও বাংলাদেশ ব্যাংকে তা দেয়া হয় না।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ