jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» আল্লামা শায়খ যিয়া উদ্দিনের বর্ণাঢ্য জীবন ও কর্ম নিয়ে লিখিত জীবনী স্মারকের মোড়ক উন্মোচন ৮ আগস্ট «» রাজনৈতিক সংকট এখন রাজনৈতিক শূন্যতায় পরিনত হয়েছে- মাওলানা ইসহাক «» বিশ্বনাথে এইচএসসিতে দুই বোনের জিপিএ-৫ লাভ «» দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শতাধিক পরিবারে আল হান্নান ইসলামী সমাজ কল্যাণ সংস্থার ত্রাণ বিতরন «» মৌলভীবাজারে সিজারে টানা হেচড়ায় নবজাতকের গলা কেটে মৃত্যু «» প্রিতমের গোল্ডের জিপিএ-৫ লাভ «» জগন্নাথপুরে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পানিবন্দি অসহায় মানুষের কাছ থেকে কিস্তি আদায় করছে এনজিও সংস্থা আশা «» বিশ্বনাথে সরকারি জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ «» ছাতকে নদী থেকে লাশ উদ্ধার  «» ওসমানীনগরে ৩২টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ




ছাতকের ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে চাকুরী গ্রহণের হিড়িক

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সুনামগঞ্জের ছাতকে সরকারী চাকুরী গ্রহণের ক্ষেত্রে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন এলাকার মানুষ কোটা সুবিধার সুযোগ নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চোখ ফাঁকি দিয়ে বিষয়টি সু-কৌশলে দীর্ঘদিন ধরে অবলিলায় চলে আসছে। পুলিশ ভেরিফিকেশনের ক্ষেত্রেও কৌশলে উত্তরণ হয়ে যাচ্ছে তারা। ফলে স্থানীয়রা সরকারী চাকুরী গ্রহণের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে রয়েছে।
বিশেষ করে শিক্ষক ও রেলওয়ে বিভাগে নিয়োগের ক্ষেতে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে নিয়োগ নেয়ার প্রবণতা অতিমাত্রায় লক্ষ্য করা গেছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে পড়ছে না, নাকি বিষয়টি আমলে না নিয়ে অনৈতিকভাবে ভুয়া ঠিকানাধারীদের সুযোগ করে দেয়া হচ্ছে-এ প্রশ্নই ঘুরপাক খাচ্ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।
ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে ইতিমধ্যেই অন্য জেলার বহু মানুষ সরকারী চাকুরী নিয়ে বহাল তরিয়তে রয়েছেন। একইভাবে বহু চাকুরী প্রত্যাশী ব্যক্তি সব ধাপ পাড়ি দিয়ে পুলিশ ভেরিফিকেশনের সর্বশেষ ধাপে অপেক্ষমান। আবার চাকুরীর প্রত্যাশায় আরো শত শত প্রার্থী একইভাবে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে সরকারী বিভিন্ন পদে দরখাস্ত দিয়ে প্রহর গুনছে।
জানা যায়, সম্প্রতি বাংলাদেশ রেলওয়ে বিভাগে খালাসী ও ওয়েম্যান পদসহ একাধিক পদে বেশ কিছু লোক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এসব প্রার্থীরা নিয়োগ নেয়ার সকল ধাপ উত্তরন করে সর্বশেষ ধাপ পুলিশ ভেরিফিকেশন পর্যায়ে রয়েছে। নিয়োগপ্রাপ্ত এসব প্রার্থীদের মধ্যে অধিকাংশই পৌরসভাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ভুয়া ঠিকানাধারী। সঠিকভাবে পুলিশ ভেরিফিকেশন হলে মূল বিষয় বেরিয়ে আসবে। নিয়োগপ্রাপ্তদের মধ্যে একই পরিবারের একাধিক ব্যক্তিও রয়েছেন। তাদের মধ্যে কেউ সুনামগঞ্জ আবার কেউ সিলেটের ঠিকানা ব্যবহার করে নিয়োগ নিয়েছেন। মূলত: এরা কেউই সিলেট বিভাগের বাসিন্দা নয়। এ ক্ষেত্রে তারা ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে কৌশলে পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নাগরিক সনদ নিয়ে সুনামগঞ্জ জেলার কোটায় চাকুরী নিচ্ছেন।
রেলওয়ে বিভাগে ওয়েম্যান পদে মামুন আহমদ, পিতা ধন মিয়া, মো. ওয়াসিম, পিতা- দুদু মিয়া, আমির হোসেন, পিতা সিরাজুল ইসলাম, ময়নুল ইসলাম, পিতা- ইসমাইল আলী নিয়োগ নিয়েছে। এরা সবাই সুনামগঞ্জ জেলার বাসিন্দা নয়। এরা ছাতকের বিভিন্ন ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে চাকুরী নিয়েছে।
একইভাবে রেলওয়ের খালাসী পদে নূরুল ইসলাম, পিতা মৃত ইসমাইল আলী, সুহেল মিয়া ও রুবেল মিয়া, পিতা ফজলুর রহমান, জাকির হোসেন, পিতা রমজান আলী, সঞ্জয় কুমার দাস, পিতা সুনিল কুমার দাস, আব্দুল কাদির, পিতা তাজ উদ্দিনসহ আরো অনেকেই ভুয়া ঠিকানায় চাকুরী নিয়েছে।
এদিকে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রেও ব্যাপক হারে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে নিয়োগ নিয়েছেন বহিরাগতরা। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রার্থীকে নিজ উপজেলার স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে দরখাস্ত করার বিধান রয়েছে। কিন্তু বহিরাগতরা কৌশল অবলম্বন করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভুয়া ঠিকানার বাসিন্দা সেজে নাগরিকত্ব সনদ গ্রহণ করে নিয়োগ নিয়েছেন- এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ছাতকের ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে নিয়োগ নিয়ে বিভিন্ন স্কুলে চাকুরীরত আছেন নির্মল পুরকায়স্থ শারফিন নগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, ইতি পুরকায়স্থ চানপৃর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, মমতা কর্মকার রাতগাঁও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, সেলিম আহমদ নানশ্রী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, হায়দার আলী খুরমা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, রুনা তালুকদার খিদুরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, নিরঞ্জন দাস বারগোপী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে, অনুপম দাস গোবিন্দনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।
সূত্র মতে, নিয়োগপ্রাপ্ত এসব শিক্ষক-শিক্ষিকা কেউ ছাতক উপজেলার বাসিন্দা নয়। নিয়োগের সময় তারা ছাতক উপজেলার কোটায় নিয়োগ নিয়েছেন। আবার অনেকেই ছাতকের কোটায় নিয়োগ নিয়ে নিজ এলাকায় বদলী হয়ে চলে গেছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মানিক চন্দ্র দাস জানান, এমন অভিযোগ তিনি এর আগেও পেয়েছেন। তিনি বিষয়টি আবারো খতিয়ে দেখবেন।
ছাতক রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান জানান, চাকুরী প্রার্থীরা যে কোন ঠিকানা ব্যবহার করে আবেদন করতে পারে। নিয়োগের ক্ষেত্রে পুলিশ ভেরিফিকেশনের সময় তার সঠিক ঠিকানা বেরিয়ে আসবে। এতে আমাদের করণীয় কিছু নেই।
ছাতক থানার ওসি মোস্তফা কামাল জানান, এখানে তিনি নতুন এসেছেন। চাকুরী সংক্রান্ত পুলিশ ভেরিফিকেশনের বিষয়টি তিনি এখনো দেখেননি। তবে এখন এ বিষয়টি তিনি নিজেই তদারকি করবেন।
সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক এ ব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, ভুয়া ঠিকানা দিয়ে অন্য জেলার মানুষ চাকুরী করার বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। এতে স্থানীয় শিক্ষিত যুব সমাজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। বিষয়টি তিনি গুরুত্বের সাথে দেখবেন বলে জানান।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ