jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» আল্লামা শায়খ যিয়া উদ্দিনের বর্ণাঢ্য জীবন ও কর্ম নিয়ে লিখিত জীবনী স্মারকের মোড়ক উন্মোচন ৮ আগস্ট «» রাজনৈতিক সংকট এখন রাজনৈতিক শূন্যতায় পরিনত হয়েছে- মাওলানা ইসহাক «» বিশ্বনাথে এইচএসসিতে দুই বোনের জিপিএ-৫ লাভ «» দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শতাধিক পরিবারে আল হান্নান ইসলামী সমাজ কল্যাণ সংস্থার ত্রাণ বিতরন «» মৌলভীবাজারে সিজারে টানা হেচড়ায় নবজাতকের গলা কেটে মৃত্যু «» প্রিতমের গোল্ডের জিপিএ-৫ লাভ «» জগন্নাথপুরে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পানিবন্দি অসহায় মানুষের কাছ থেকে কিস্তি আদায় করছে এনজিও সংস্থা আশা «» বিশ্বনাথে সরকারি জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ «» ছাতকে নদী থেকে লাশ উদ্ধার  «» ওসমানীনগরে ৩২টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ




আমি কাউকে আঘাত দিতেও চাই না, আঘাত পেতেও চাই না: পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান

ডেস্ক রিপোর্ট :: আমার আচরণে আপনারা দুঃখ পাবেন না। আমি কাউকে আঘাত দিতেও চাই না, আঘাত পেতেও চাই না। কেউ আঘাত দিলে কষ্ট পাই, আমি একলা একলা কাঁদি। তারপরও আঘাত মাঝে মাঝে চলে আসে। আপনারা প্লিজ ভালো করে কাজ করেন। আর আমি যে কয়েকটা দিন আছি, দয়া করে আমাকে সাহায্য করেন। কী সাহায্য? গতিটা বাড়ানোর চেষ্টা করেন। আর কিছুই না।

বুধবার (১৯ জুন) সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে এক কর্মশালায় যোগ দিয়ে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের কাজে গতি আনার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
ডিজিটাল ডাটাবেজ সিস্টেম ও আর্কাইভ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এনইসি-একনেক ও সমন্বয় অনুবিভাগের সক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ (প্রথম সংশোধিত) প্রকল্পের পক্ষ থেকে স্ট্রাক্চার অব দ্য ফিজিবিলিটি স্টাডি ফর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট শীর্ষক কর্মশালাটি আয়োজন করা হয়।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আমি কোনো জেদ করব না। আপনারা যে ধাঁচে কাজ করছেন, এটা অত্যন্ত টাইমার। বহুদিন যাবত এটা চলে আসছে। এখানে হাত দিয়ে আঙুল পুড়াতে চাই না।

তিনি বলেন, আপনার কাছে কাগজটা আসলে, আমার কাছে কাগজটা আসলে যেন তাড়াতাড়ি আমরা ছেড়ে দিই। না বলার অধিকার অবশ্যই আপনার আছে। কিন্তু হ্যাঁ-ও বলি না, না-ও বলি না– ধরে নিয়ে বসে থাকি, এটা গ্রহণযোগ্য নয়। আপনি নোট দিয়ে দেন। কাগজটা নিয়ে বসে থাকা উচিৎ না।

কর্মশালার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এম এ মান্নান বলেন, এই মুহূর্তে আমরা সবাই বেতনভুক্ত কর্মচারী। এটাই আমাদের প্রথম ও প্রধান কাজ। এই বিষয়টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আমি আঁচ করতে পারছি। কারণ প্রায়ই দেখা যায়, ফিজিবিলিটি স্টাডি ছাড়াই প্রকল্প চলে আসে। আসলেও পরে খোঁড়া ফিজিবিলিটি, ভালোভাবে করে না। এ সম্পর্কে আগে আমাদের ধারণা পরিষ্কার হতে হবে, পরে ওদের পরিষ্কার হতে হবে।

পরিকল্পনামন্ত্রীর প্রত্যাশা, ফিজিবিলিটি স্টাডির জন্য প্রো-ফরম স্ট্রাকচার বিদ্যমান যেটা আছে, সেটাই সংস্কার করবেন কিংবা নতুন করে একটা বানাবেন।

কর্মশালায় পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. নূরুল আমিন, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব আবুল মনসুর মো. ফয়জুল্লাহসহ পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ