jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৬ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» আল্লামা শায়খ যিয়া উদ্দিনের বর্ণাঢ্য জীবন ও কর্ম নিয়ে লিখিত জীবনী স্মারকের মোড়ক উন্মোচন ৮ আগস্ট «» রাজনৈতিক সংকট এখন রাজনৈতিক শূন্যতায় পরিনত হয়েছে- মাওলানা ইসহাক «» বিশ্বনাথে এইচএসসিতে দুই বোনের জিপিএ-৫ লাভ «» দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শতাধিক পরিবারে আল হান্নান ইসলামী সমাজ কল্যাণ সংস্থার ত্রাণ বিতরন «» মৌলভীবাজারে সিজারে টানা হেচড়ায় নবজাতকের গলা কেটে মৃত্যু «» প্রিতমের গোল্ডের জিপিএ-৫ লাভ «» জগন্নাথপুরে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে পানিবন্দি অসহায় মানুষের কাছ থেকে কিস্তি আদায় করছে এনজিও সংস্থা আশা «» বিশ্বনাথে সরকারি জায়গায় অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের অভিযোগ «» ছাতকে নদী থেকে লাশ উদ্ধার  «» ওসমানীনগরে ৩২টি প্রতিষ্ঠানে পাঠদান বন্ধ




প্রসঙ্গঃ ঈমানী চেতনায় নবী প্রেম- মোঃ মিজানুর রহমান মিজান

মহান আল্লাহতায়ালা সৃষ্টিজগতের সূচনালগ্ন থেকে আমাদেরকে সরল সঠিক পথে পরিচালিত করতে অসংখ্য নবী- রাসুল প্রেরণ করেছেন। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সৃষ্টির প্রথম এবং শেষ। আমাদের প্রিয় নবী ছাড়াও আল্লাহর প্রেরিত সকল নবীর প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা সকল মুমিন মুসলমানের জন্য ফরজ। এমন কোনো কথা বলা বা কাজ না করা, যা দ্বারা কোনো নবীর প্রতি অসম্মান, তাচ্ছিল্য ভাব ফুটে উঠে, যদিও তাতে অসম্মানের নিয়ত থাকে না। চর্ম রোগকে আমরা অনেকেই দাউদ রোগ বলে থাকি, যা দ্বারা নবী হযরত দাউদ (আ.) কে অসম্মান করা হয়। বাচ্চাকে প্রস্রাব করানোর সময় অনেকেই শিস কর বলে থাকেন। তাছাড়া বয়স্কদের অনেকেই কৌতূহলবশত প্রস্রাব করাকে শিস করা বলে থাকেন, যা দ্বারা হযরত শিস (আ.) কে অসম্মান করা হয়। চর্ম রোগকে ‘দাউদ’বলা, প্রস্রাব করানো বা করাকে ‘শিস’ বলার সূচনাটা সম্ভবত কোনো অমুসলিমের দ্বারা সংগঠিত হয়েছিল মুমিন মুসলমানের ঈমানী চেতনাকে বিনষ্ট করার হীন উদ্দেশ্যে, আর আমরা সরলতায় বিধর্মীদের কুটচাল না বুঝে ঈমানী চেতনাকে বিসর্জন দিয়ে ওই শব্দগুলো অহরহ ব্যবহার করছি, যা দেখে হয়ত বিধর্মীরা আনন্দ উল্লাস করছে। তাই নবী প্রেমে উদ্ভাসিত হয়ে ঐ সমস্ত শব্দ ব্যবহার করা থেকে আমাদের সকলকে বিরত থাকা একান্ত জরুরি। মহান আল্লাহ যেন আমাদেরকে বুঝার তৌফিক দান করেন, আমীন। লেখকঃ শিক্ষক ও কলামিষ্ট।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ