jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৬ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :




খেলাফত মজলিস সিলেট জেলার ষান্মাসিক শুরা অধিবেশন সম্পন্ন

খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সিলেট জেলা সভাপতি মাওলানা সৈয়দ মুশাহিদ আলী বলেছেন, ‘নরেন্দ্র মোদী সরকার কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা বাতিল করে মানবাধিকার লঙ্গন করেছে।গোজরাটের কসাই খ্যাত মুদীর নিকট শান্তি প্রত্যাশা করা অবান্তর।কাশ্মীরের নাগরীকদের বিশেষ মর্যাদা ও সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্ছিত করে পুর্ণ কাশ্মীরকে একটি জেলখানায় রুপান্তরীত করেছেন।’তিনি বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে উদ্যেশ্য করে বলেন,’ যোগ যোগ ধরে নির্যাতীত স্বাধীনতাকামী কাশ্মিরী জনগণের সমস্যাকে ভারতের অভ্যন্তরিন বিষয় বলে স্বাধীনতাকামী মানুষের মৌলিক অধিকার থেকে কোনোভাবেই বঞ্চিত করা যাবেনা।এটি উম্মাহর অনুভুতির বিষয়। একে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। বরং সমাধানের জন্য জাতিসংঘের অধীনে গণভোটের মাধ্যমে স্থায়ীভাবে জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন প্রদান করে মানবাধিকার রক্ষা ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় মুসলিম বিশ্বকে এগিয়ে আসতে হবে।’ বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বিকেলে খেলাফত মজলিস সিলেট জেলা শাখার ষান্মাসিক মজলিসে সূরার অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলে তিনি। জেলা সেক্রেটারি মাওলানা নেহাল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, সহ সভাপতি মাওলানা শামসুদ্দীন মুহাম্মদ ইলয়াস, সহ সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মুহাম্মদ ফজর আলী, মাওলানা মুখলিছুর রহমান, মাওলানা ওলিউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা কাজী আবদুল ওয়াদুদ, প্রশিক্ষণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল্লাহ আল হাদী, অফিস সম্পাদক হাফিজ মাওলানা খালেদ আহমদ প্রমুখ।

 

অধিবেশনে জেলা, উপজেলা ও পৌর শাখা সমূহের বিগত ছয়মাসের রিপোর্ট পেশ ও পর্যালোচনা করা হয় এবং আগামী ৬ মাসের পরিকল্পনা পূণর্মূল্যায়ন করা হয়। এছাড়া অধিবেশনে কুরবানীর চামড়া নিয়ে সিন্ডিকেট করে পানির দামে চামড়া ক্রয় করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়া সত্বেও সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানানো হয় এবং কওমী মাদ্রাসা ও এতিমখানাসমূহের পাশে দাঁড়ানোর জন্য খেলাফত মজলিসের সকল নেতা-কর্মী ও দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তি

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ