jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৬ই মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :




মাইকিং করে ৪২ মণ ওজনের সেই আলোচিত ষাঁড় ‘টাইগারকে জবাই করে গোস্ত বিক্রি

জগন্নাথপুর পত্রিকা ডেস্ক :: গোয়াল ঘরে পা পিছলে দুই পা ভেঙে অসুস্থ হয়ে পড়ায় ৪২ মণ ওজনের সেই আলোচিত ষাঁড় গরু ‘টাইগারকে জবাই করে গোস্ত বিক্রি করা হয়েছে। এতে বিমর্ষ হয়ে পড়েছেন টাইগারের মালিক মিনারুল ইসলাম ও স্ত্রী জাকিয়া সুলতানা।

 

অনিচ্ছা স্বত্ত্বেও লোকসান ঠেকাতে প্রিয় ষাঁড় গরুটি জবাই করতে বাধ্য হন মালিক মিনারুল ইসলাম। বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করে টাইগারের গোস্ত বিক্রি করা হয়। এ খবর শুনে মিনারুলের বাড়িতে ভিড় জমায় উৎসুক জনতা। প্রিয় গরুটির জন্য স্বজন, গরু লালন পালনকারী শ্রমিক, উপস্থিত মানুষদের অনেকের চোখই ছিল অশ্রুসজল।

 

টাইগারের মোট ২৪ মণ গোস্ত বিক্রি হয়েছে। ৫শ’ টাকা কেজি হিসেবে গোস্ত কিনতে দূর-দূরান্ত থেকে প্রচুর ক্রেতার সমাগম ঘটে সেখানে। গরুর মালিক এই গোস্ত বিক্রি করে ৫ লাখ টাকা পেয়েছেন বলে জানা যায়।

 

ষাঁড় গরুটির মালিক মিনারুল ইসলাম জানান, শনিবার বিকেল চারটার দিকে গোয়াল ঘরে পা পিছলে পড়ে যায় টাইগার। এতে পিছন ও সামনের ডান পা দুটি ভেঙে যায়। এতে অসুস্থ হয়ে পড়ে টাইগার। পরে স্বজন ও প্রতিবেশী সবার পরামর্শে জবাই করে গোস্ত বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

 

মিনারুল ও তার স্ত্রী জাকিয়া বলেন, টাইগারকে সন্তানের মতো লালন পালন করতাম। তাকে এভাবে হারাতে হবে বুঝতে পারিনি। খুব কষ্ট হচ্ছে। সব স্বপ্ন ভেঙে গেল।

 

উল্লেখ্য, ৯ ফুট দৈর্ঘ্য আর সাড়ে ৫ ফুট উচ্চতার ফিজিয়ান জাতের ষাঁড় গরুটির ওজন হয়েছিল ৪২ মণ। কালো আর সাদা রঙ মিশ্রিত সুঠাম স্বাস্থ্যর অধিকারী ষাঁড় গরুটির নাম দেওয়া হয়েছিল ‘টাইগার’। কোরবানির আগে টাইগারের দাম ৩০ লাখ টাকা হেঁকে আলোচনায় আসেন খামারী মিনারুল ইসলাম। সুত্র: বিডি প্রতিদিন

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ