jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» ছাতকের মন্ডলপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছাত্র ছাত্রীদের বিদায় সংর্বধনা «» গোয়াইনঘাটে জুয়া খেলার দায়ে ৯ জন আটক মাদক উদ্ধার «» ছাতকে সিএনজি পিকআপ সংঘর্ষে চালক নিহত «» জগন্নাথপুরে পেঁয়াজের কেজি ২০০ : সাধারণ ক্রেতারা দিশেহারা «» ছাতকে দলিল জালিয়াতি মামলায় ৪ বছরের কারাদণ্ড «» ১৭ নভেম্বর প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু «» সিলেটে শ্রমিক নেতা আলা উদ্দিন সওদাগরের মৃত্যুতে মিজান চৌধুরীর শোক «» গোয়াইনঘাটে গুচ্ছগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিএসসি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন «» আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করতে হবে- নুরুল ইসলাম নাহিদ «» বিশ্বনাথে চাঁদাবাজীর মামলায় মাদ্রাসা সুপার হোমাইদী কারাগারে




ওসমানীনগরে মসজিদের পুকুরের মালিকানা নিয়ে উত্তেজনা

কবির আহমদ, ওসমানীনগর :: সিলেটের ওসমানীনগরে খয়রাবাদ বাজার মসজিদের পুকুরের মালিকানা দাবী করায় এলাকাবাসির মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে ।
জানা যায়, উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের খয়রাবাদ বাজার জামে মসজিদের পুকুর এনিমি প্রপার্টিজ খ তপসিলে চলে গেলে স্থানীয় গোপালপুর গ্রামের মৃত মছদ্দর উল্লাহ’র ছেলে আব্দুল মন্নান এলাকাবাসিকে না জানিয়ে গোপণে ১৫-১৬ ইং সালে নিজের নামে নামজারি করিয়ে আনেন।

 

এরপর থেকে তার ছেলে ছনর আহমদ বিভিন্ন স্থানে বলাবলি করেন মসজিদের পুকুরটি তাদের পারিবারিক মালিকানার। গত ১৬ অক্টোবর মসজিদ কমিটি পুকুরে জাল ফেলে মাছ ধরার পর ছনর আহমদ মাছ বিক্রি করতে নিষেধ করনে। এসময় মসজিদ পরিচালনা কমিটি, বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে ছনর আহমদ এর কথা কাটাকাটি হয়।
মসজিদের পুকুরের মাছ ধরার সময় উপস্থিত ছিলেন, মসজিদের মোতাওয়াল্লী  হাজি গোলাম মোস্তফা শিকদার, সমাজসেবক সুরত মিয়া, আ’লীগ নেতা কাজী আব্দাল মিয়া, এম এ পলাশ, সমাজকর্মী ডা. এমদাদুল হক চৌধুরী, আহাদ আলী হানু, যুবলীগ নেতা মঞ্জুর ইসলাম, কাজী আলী, সেলিম আহমদ, আব্দুল হান্নান, শিপলু আহমদ,কামাল আহমদ,মঈনুল আহমদ,সাইস্তা মিয়া, শাকির আহমদ, ব্যবসায়ী গৌছ আলী, ইমরান আহমদ, কাজী আহমদ আলী মধু, জালাল আহমদ,আব্দুল করিম, জুয়েল মিয়া, শাহ্জাহান আহমদ, কাওছার মিয়া, আবুল কালাম, কুতুব আলী, কাজী গোলাপ মিয়া প্রমূখ।

 

যুবলীগ নেতা কাজী আলী জানান, ছনর আহমদ মসজিদের পুকুর ভূমি অফিসের যোগসাজসে কৌশলে নামজারি করিয়ে এনেছে শুনেছি। এখন সে মসজিদের পুকুরের মাছ বিক্রি করতে নিষেধ করে। সে এলাকায় বিশৃংখলা সৃষ্টি করতে চায়।আ’লীগ নেতা এম এ পলাশ জানান, পুকুরটি যুগ যুগ ধরে মসজিদের মালিকানায় রয়েছে। ছনর ভূমি অফিসের সহায়তায় নামজারি করিয়ে হঠাৎ মমজিদের পুকুরের মালিকানা দাবি করছে। এটা এলাকাবাসি মানবে না।

 

 

স্থানীয় বাজারের ফার্মেসি ব্যবসায়ী এমদাদুল হক চৌধুরী জানান, আমার বাবা এ মসজিদে ৪৫ বছর ইমামতি করেছেন। আমরা ছোটবেলা থেকে এ পুকুর মসজিদের হিসেবে দেখে আসছি। হঠাৎ একজন নামজারি করিয়ে মালিকানা দাবী করছেন।মসজিদের মোতাওয়াল্লী হাজি গোলাম মোস্তফা শিকদার জানান, স্বাধীনতার পূর্ব থেকে এ পুকুরটি খয়রাবাদ বাজার জামে মসজিদের মালিকানায় রয়েছে।

 

 

২৫ বছর পূর্বে মসজিদের অর্থায়নে মুসল্লিদের অজুর জন্য পাকা ঘাট ও পুকুরের পাড়ে শৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে। পুকুররটি এনিমি প্রপার্টির খ তপসিলে চলে গেলে আব্দুল মন্নান এলাকার কাউকে না জানিয়ে গোপণে তার নামে নামজারি করিয়ে আনেন। উপজেলা ভূমি অফিস এলাকায় সরজমিনে তদন্ত না করে মসজিদের ৫৫ বছরের দখলকৃত পুকুর একজন ব্যক্তির নামে নামজারি করে দিলেন। এ নামজারির শক্তিতে ছনর আহমদ মসজিদের পুকুর দখল করতে চায়।

 

 

ছনর আহমদ জানান, এ পুকুরটি ১৯৫৬ ইং ও ১৯৫৮ ইং সনের দু’টি দলিলে আমার পরিবার ক্রয় করেছেন। আমি কাগজ পত্রে ভূমির মালিক। কেউ মাছ ধরতে হলে আমাকে জিজ্ঞেস করে ধরতে হবে। আমি আইনগত মালিক।

 

 

উছমান পুর ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল আজাদ ফারুক বলেন, পুকুরটি দীর্ঘদিন ধরে খয়রাবাদ বাজার জামে মসজিদ ব্যবহার করছে। পুকুরের ভূমি হিন্দু কর সম্প্রদায়ের ছিলো। ছনর কিভাবে পেয়েছে তা আমার জানা নেই।

 

 

উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ফাতেমা-তুজ-জোহরা বলেন, আমি আসার আগে এটি নামজারি করা হয়েছে। নামজারির ত্রিশ দিনের মধ্যে কোন অভিযোগ দিলে নামজারি বাতিল করা যেত। এখন দেওয়ানী মামলা করতে হবে।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ