jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ২রা শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» জগন্নাথপুরে আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কয়েছ ইসরাঈল’র ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে জমিয়ত নেতা মাওঃ আব্দুস সালাম মুরাদাবাদীর ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে যুবদল নেতা সৈয়দ শফিকুর রহমানের ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম জামালের ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে ওদুদ কামালীর ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে আব্দুল কামালীর ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে সোহেল আহমদ খান টুনুর ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান ও সিদ্দিক আহমদের আদর্শের কর্মী আব্দুস সত্তারের ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি কবির আহমদ হীরা’র ঈদ শুভেচ্ছা «» জগন্নাথপুরে ইউপি সদস্য ছাত্রলীগ নেতা মাহবুব হোসেনের ঈদ শুভেচ্ছা




দোয়ারায় প্রভাবশালীদের একাদিক মামলায় দিশেহারা অসহায় পরিবার

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি :: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের বৈটাখাই বাজারের ভূমির মালিকানা নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মামলা থাকায়, প্রভাবশালীদের একাদিক মামলায় দিশেহার অসহায় পরিবারের লোকজন। শনিবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় সরেজমিনে উপস্থিত হয়ে দেখা গেছে বৈটাখাই বাজার গলির মধ্যে অসহায় পরিবারের লোজজন তাদের জমির মালিকানা না পেয়ে মানবতর জীবন যাপনের জন্য বসত ঘর বানিয়ে বসবাস করে আসছে। বৈটাখাই মৌজার ১৫২৮ দাগের ভূমির মালিক থেকে ইসলাম উদ্দিন জমি ক্রয় করে ১৯৮৫ সালে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের ৮/৯ টি মামলা আদালতে রয়েছে। বৈটাখাই বাজার প্রতিষ্টিত হয় ১৯৯৪ সালে। তখন জোর পুর্বক বাজার কমিটির ১৭ জন মিলে জমি ক্রয় না করেও বৈটাখাই বাজারে ইসলাম উদ্দিনের ভূমি দখল করে দোকান পাট করে পরর্বতীতে বৈটাখাই বাজার কমিটির ১৭ জন ১৯৯৮ সালে একই দাগে একই মালিকের নিকট থেকে ভূমি ক্রয় করে মালিক হন তারা।

 

 

 

সবার আগে ইসমাইল উদ্দিনের ক্রয় সুত্রে মালিক হন। আগের দলিল হওয়ার পরও স্থানীয় প্রভাবশালীদের কারণে অসহায় পরিবারের লোকজন ভূমির মালিকানা থেকে বঞ্চিত রয়ে গেছে। এদিকে সুরমা ইউনিয়নের প্রভাবশালী ইউপি সদস্য বৈটাখাই গ্রামের রশিদ মুন্সির ছেলে আব্দুল কাদির, তারই ছোট ভাই আব্দুল মালেক, আলীপুর গ্রামের মৃত নুর মিয়ার পুত্র ধর্নাট্য ও প্রভাবশালী আব্দুর রহিম, আলীপুর গ্রামের ফালু মিয়ার পুত্র আসাদ, বৈটাখাই গ্রামের হাসিমের পুত্র আহামম্মদ আলী, বৈটাখাই গ্রামের ইব্রাহিমের পুত্র বাচ্ছু মিয়া, বরকাটা গ্রামের ইন্তাজ আলীর পুত্র নিজাম উদ্দিন, আলাউদ্দির পুত্র হাছেন আলী।

 

 

 

সবাই মিলে দিনমজুর ইসলাম উদ্দিনের পরিবারকে বৈটাখাই মৌজার এস এ ১৫২৮ দাগের ভূমির দখল না দিয়ে দীর্ঘদিন জাবত জোর দখল করে দোকানপাট ও দালান করে ভোগ দখল নিয়েও অসহায় ইসলাম উদ্দিনের পরিবারের মহিলা সহ ৭ সদস্যকে ৮ টি প্রতারণা মূলক মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে।

 

 

 

বৈটাখাই গ্রামের দিনমজুর অসহায় নীরিহরা হলেন বৈটাখাই গ্রামের মৃত মেছতা উদ্দিনের পুত্র ইসলাম উদ্দিন, মনির হোসেনের স্ত্রী ছালেহা বেগম, আব্দুর রহিমের পুত্র মনির হোসেন,ইসলাম উদ্দিনের স্ত্রী ওরুনা বেগম, মেজবা উদ্দিনের পুত্র লাল মিয়া, টেংরাটিলা গ্রামের মৃত আব্দুল বারিকের পুত্র আব্দুল মোতালিব।

 

 

 

এব্যাপারে মামলার বাদি বিবাদী ও প্রভাবশালী ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির বলেন, আমি সহ বাজার কমিটির ৭ জন ১৫২৮ দাগে জমি ক্রয় করেছি। এরপরও বিষয়টি নিষ্পত্তির সার্থে আলোচনা হচ্ছে আশা করি বাজারের ভূমি সংক্রান্ত মামলা মোকদ্দমার বিষয়টি স্থানীয় ভাবে বসে শেষ করা হবে।

 

 

 

বাদি আব্দুর রহিম বলেন, আমরা যেহেতু দোকান ঘর বানিয়ে দখল নিয়ে আছি ইসলাম উদ্দিনকে বাজারের বাইরে থেকে ৮ শতক জায়গা দেওয়ার কথা বলেছি সে বাইরে থেকে নিতে রাজি হয় না বিদায় মামলা হয়েছে।

 

 

এব্যাপারে ইসলাম উদ্দিন বলেন আমি দিনমজুর অসহায় মানুষ দীর্ঘদিন জাবত বাজারারের আমার ক্রয়কৃত ভূমির মালিকানা না পেয়ে আদালতে মামলা করলে, বাজার কমিটির সবাই আমার পরিবারের মহিলা সহ ৭ জনকে ৮ টি মামলা দিয়ে ভয় বিতি দেখিয়ে আসছে।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ