jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ২৯শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» মৌলভীবাজারে ছাত্র মজলিসের ৩০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সম্মেলন ও বর্ণাঢ্য র‍্যালী অনুষ্ঠিত «» চিকিৎসকদের রোগী দেখার ফি নির্ধারণ করে দেবে সরকার «» রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সাথে আ.লীগ নেতা আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী সহ যুবলীগ নেতৃবৃন্দের সাক্ষাত «» দোয়ারাবাজারে কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা মানছেনা পিআইসিরা অপ্রয়োজনীয় বাঁধ বন্ধের নির্দেশ «» সৈয়দপুরে সৈয়দ শাহ শামসুদ্দিন (র.) বালিকা মাদ্রাসার মজলিসে শুরা সম্পন্ন «» বালাগঞ্জে ‘ইব্রাহিমপুর প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগের উদ্বোধন «» বিশ্বনাথে ডাকাতি-স্বর্ণ ও টাকা লুট : আহত-২ «» জগন্নাথপুরে অবৈধভাবে ২৭টি দোকানপাট নির্মাণ : অবশেষে প্রশাসনের অভিযানে উচ্ছেদ «» জগন্নাথপুরে আ.লীগ নেতা সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকের ৬ শতাধিক শীতার্ত মানুষের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ «» হাওর বাঁচাও আন্দোলন ছাতক উপজেলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত




দোয়ারায় শাহ আরেফিন বাজারের প্রবেশ পথ বন্ধ  করে টিনের ছাপরাঘর নির্মাণের অভিযোগ

হারুন অর রশিদ, দোয়ারাবাজার থেকে :: সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের বৈটাখাই শাহ আরেফিন বাজারের প্রবেশ পথের মধ্য গলি দখলের অভিযোগ উটেছে।

স্থানীয় সুত্র ও অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায় শাহ আরেফিন বাজারের ভূমির মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত দু পক্ষের মধ্যে মামলা মোকদ্দমা চলে আসায় হঠাৎ এক পক্ষ শাহ আরেফিন বাজারের প্রবেশ পথ বন্ধ করে টিনের ছাপরা ঘর বানিয়ে জমির মালিকা নেওয়ায় বাজারে সৌন্দর্য বিকশিত হয়ে পরেছে।

ইতিমধ্যে সহকারী কর্মকর্তা ( ভূমি)  তাপস শীল, ২৯/০৯/২০১৯ ইং শাহ আরেফিন বাজার পরিদর্শন করে বাজারের মধ্যগলিতে ছাপরা ঘর নির্মাণের উপর একটি প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন।

উভয় পক্ষের দাবিকৃত ভূমি বৈটাখাই মৌজার ১৫২৮ দাগের ভূমি,  এক পক্ষ শাহ আরেফিন বাজার প্রতিষ্টা লগ্ন থেকে জমির দখল নিয়ে দোকান কোটা বানিয়ে ব্যবসা চালিয়ে আসছে। অপর পক্ষ বাজারের ভূমির খোজ না পেয়ে দীর্ঘদিন পর বাজারের মুল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে জেগে উটেছে বাজারের ভূমির মালিকানা পাওয়ার জন্য এরা হলেন, বৈটাখাই গ্রামের মৃত মেছতা উদ্দিনের পুত্র ইসলাম উদ্দিন, মনির হোসেনের স্ত্রী  ছালেহা বেগম, আব্দুর রহিমের পুত্র মনির হোসেন,ইসলাম উদ্দিনের স্ত্রী ওরুনা বেগম, মেজবা উদ্দিনের পুত্র লাল মিয়া,

অন্যদিকে বৈটাখাই শাহ আরেফিন বাজার পরিচালনা কমিটির সদস্যরা হলেন, আলীপুর গ্রামের মৃত নুর মিয়ার পুত্র আব্দুর রহিম, বৈটাখাই গ্রামের রশিদ মুন্সির ছেলে ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির, তারই ছোট ভাই আব্দুল মালেক, আলীপুর গ্রামের ফালু মিয়ার পুত্র আসাদ, বৈটাখাই গ্রামের হাসিমের পুত্র আহামম্মদ আলী, বৈটাখাই গ্রামের ইব্রাহিমের পুত্র বাচ্ছু মিয়া, বরকাটা গ্রামের ইন্তাজ আলীর পুত্র নিজাম উদ্দিন,  আলাউদ্দির পুত্র হাছেন আলী।

আব্দুর রহিম বলেন ১৯৯৪ সালে স্থানীয় কয়েকটা গ্রামের মানুষের মতামতের প্রেক্ষিতে শাহ আরেফিন বাজারের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে বৈটাখাই শাহ আরেফিন বাজার প্রতিষ্টার লক্ষে সবাই এক হয়ে আমরা বাজার তৈরি করি। প্রায় দুইযোগ পরে এসে একটা পক্ষ বাজারের প্রবেশ পথের গলির মধ্যে টিনের ছাপরা ঘর বানিয়ে শাহ আরেফিন বাজার দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছে।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ