jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ১৫ই রজব, ১৪৪২ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :
«» সৈয়দপুর বাজার টু ভবের বাজার রাস্তার বেহাল দশা, জরুরি ভিত্তিতে সংস্কারের দাবি «» পরিসংখ্যান দিবস উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা «» ছাতকে উপজেলা প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম নির্মাণ কাজে নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ «» বিশ্বনাথে আন্তর্জাতিক কোরআন তেলাওয়াত সফলের লক্ষ্যে সংবাদ সম্মেলন «» সিলেটি ভাষার আইরাম, যাইরাম, খাইরাম শব্দাবলীতে সমস্যা কোথায়? ফতোয়া দেয়ার পূর্বে একটু ভাবুন «» বিশ্বনাথে তাহেরী’কে প্রতিহত করতে সোস্যাল মিডিয়ার সমালোচনার ঝড়! «» কোম্পানীগঞ্জে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী খুন : গ্রেফতার-১ «» বালাগঞ্জে জুয়ার আসর থেকে ৮ জুয়াড়ি গ্রেফতার «» আসছে কালবৈশাখী ঝড় «» বিশ্বনাথে আসছেন গিয়াস উদ্দিন আত্ তাহেরী




আগামী ১১ এপ্রিল ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন

ডেস্ক রিপোর্ট ::  আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম দফায় ৩২৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আর তফসিল ঘোষণা করা হবে মার্চের প্রথম সপ্তাহে। বুধবার ( ১৭ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই সঙ্গে শেষ ধাপে একই দিনে আরও ৯টি পৌরসভার ভোট গ্রহণ করা হবে বলেও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আইনানুযায়ী আগামী ২১ মার্চের মধ্যে ৭৫০ ইউপিতে ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রস্তুত না থাকায় মার্চে ভোট হবে না। আগামী ২ মার্চ চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশের পর ইউপি নির্বাচনের প্রথম ধাপের তফসিল ঘোষণা করবে ইসি। ইসির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেন, কমিশন থেকে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা হওয়ার পর প্রথম ধাপের ভোটের জন্য সিডি প্রস্তুত করার জন্য বলা হয়েছে। প্রথম ধাপের পর পরবর্তী ধাপগুলোর ভোট হবে রমজানের পর। গত বারের মতো আসন্ন ইউপির ভোটও হবে দলীয় প্রতীকে। চেয়ারম্যান বা মেম্বার প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বাধ্যতামূলক নয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্ন জায়গায় চাউর হয়েছে যে, চেয়ারম্যান প্রার্থীর ক্ষেত্রে এইচএসসি এবং মেম্বার প্রার্থীর ক্ষেত্রে এসএসসি পাশ হতে হবে। এটিকে স্রেফ গুজব বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এটি নিয়ে গুজব ছড়ানো হয়েছে। এ ধরনের কোনো উদ্যোগ বা প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হয়নি। কোনো পরিকল্পনাও নেই। জাতীয় সংসদ নির্বাচন করার জন্য সংসদ সদস্যদের কোনো শিক্ষাগত যোগ্যতা লাগে না। সেখানে ইউপিতে শিক্ষাগত যোগ্যতা বাধ্যতামূলক করা সংবিধান বিরোধীও।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ