jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ২৪শে রমযান, ১৪৪২ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :




বাবাকে ‘হুজুর’ সাজিয়ে প্রেমিকাকে বিয়ে-সংসার, অতঃপর স্ত্রীর ধর্ষণ মামলা!

ডেস্ক রিপোর্ট :: মোবাইলের রং নম্বরে পরিচয়ের সূত্রে প্রেম। এরপর প্রেমিকাকে বাড়িতে ডেকে এনে নিজের বাবাকে ‘হুজুর’ সাজিয়ে দোয়া পড়িয়ে বিয়ে করেন জান্নাতুল বাকী। মৌখিক বিয়ের পর শুরু হয় সংসার। এক পর্যায়ে স্ত্রী বিবাহ নিবন্ধনের কথা বললে তাকে তাড়িয়ে দেয় স্বামী। পরে স্বামী জান্নাতুল বাকীর নামে ধর্ষণ মামলা করেন স্ত্রী। এ ঘটনার ১০৩ দিন পর পুলিশ অভিযুক্ত জান্নাতুল বাকীকে গ্রেপ্তার করে শুক্রবার দুপুরে আদালতে পাঠায়। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় এ ধরনের ঘটনা ঘটে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার একটি গ্রামের এক তরুণীর (১৯) সঙ্গে মোবাইলে পরিচয় হয় ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উছারগাতি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে জান্নাতুল বাকীর (২১)। এক পর্যায়ে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমের এক পর্যায়ে জান্নাতুল বাকী তরুণীকে নিজ বাড়িতে ডেকে এনে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। দুজন রাজী হওয়ার গত বছরের ২৩ ফেব্রুয়ারি বিয়ের সিদ্ধান্ত হয়। পরে রাতে প্রেমিক তাঁর বাবা আব্দুর রাজ্জাককে ‘হুজুর’ সাজিয়ে দোয়া পড়িয়ে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করে। এ সময় প্রেমিকা নিবন্ধনের কথা বললে পরে করিয়ে নেবে বলে সংসার শুরু করে। কয়েক দিন পর বাকীকে বিয়ে নিবন্ধনের কথা বললে স্ত্রীকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এ ঘটনায় গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর ঈশ্বরগঞ্জ থানায় জান্নাতুল বাকীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করে। এরপর থেকেই অভিযুক্ত জান্নাতুল বাকী পলাতক ছিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ঈশ্বরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক কাউসার আহম্মেদ জিয়াদ জানান, গোপন সংবাদের ভিক্তিতে অভিযুক্ত জান্নাতুল বাকীকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার নবাবগঞ্জ বাজার থেকে গত বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে শুক্রবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ