jagannathpurpotrika-latest news

আজ, , ২৪শে রমযান, ১৪৪২ হিজরী

সংবাদ শিরোনাম :




যে কারণে রোজার প্রতিদান আল্লাহ নিজেই দিবেন : শাহ মমশাদ আহমদ

প্রত্যেক আমলের নির্ধারিত সওয়াব ও প্রতিদান রয়েছে, যার মাধ্যমে আল্লাহ তা’আলা আমলকারীকে পুরস্কৃত করবেন কিন্তু রোজার বিষয়টি সম্পুর্ন আলাদা। রাসুল (সঃ) বলেন, মানুষের প্রত্যেক আমলের প্রতিদান বৃদ্ধি করা হয়, একটি নেকির সওয়াব দশগুণ থেকে সাতাশ গুন পর্যন্ত, আল্লাহ বলেন কিন্তু রোজা আলাদা। কেননা তা একমাত্র আমার জন্য এবং আমি নিজেই এর বিনিময় প্রদান করব, বান্দাহ একমাত্র আমার জন্য প্রবৃত্তি নিয়ন্ত্রণ করেছে এবং পানাহার পরিত্যাগ করেছে (সহীহ মুসলিম) সহীহ বুখারীর বর্ননায় আল্লাহ বলেন, প্রত্যেক ইবাদতই ইবাদতকারী ব্যাক্তির জন্য পক্ষান্তরে রোযা আমার জন্য, আমি নিজেই এর প্রতিদান দিব।

 

অন্যান্য ইবাদতের মত রোযা একটি ইবাদত হওয়া সত্বেও আল্লাহ নিজেই এর প্রতিদান দেয়ার কারণ ব্যাখ্যায় আলেমদের বিভিন্ন মতামত পাওয়া যায়।

১. প্রকৃতপক্ষে সকল ইবাদতই আল্লাহর জন্য, তার সন্তোষ্টি ও নৈকট্য লাভের উদ্দেশ্যেই হয়ে থাকে তবে রোজা ও অন্যান্য ইবাদতের মধ্যে একটি বিশেষ পার্থক্য রয়েছে, তা হল অন্যান্য ইবাদতের বৈশিষ্ট এমন যে তাতে আল্লাহর সন্তুষ্টি ছাড়াও এবাদতকারীর মনের স্বাদ গ্রহণের সুযোগ রয়েছে, মুখে প্রকাশ না করলেও তার অন্তরে লোকদেখানোর ভাব সৃষ্টি হতে পারে, পক্ষান্তরে রোজা এমন ইবাদত, আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে ব্যতীত নফসের স্বাদ গ্রহণের বিন্দুমাত্র সুযোগ নেই।

২. রোযা ধৈর্য্যের ফল স্বরুপ, আর ধৈর্য্য ধারনকারীদের জন্য আল্লাহ তা’আলার সুসংবাদ হল, ধৈর্য্যধারনকারীগনই অগণিত সওয়াবের অধিকারী হবে।

 

৩. রোযার মর্যাদা বুঝাবার জন্যই আল্লাহ রোজা আমার জন্য বলেছেন, যেমন – দুনিয়ায় সকল ঘরই তো আল্লাহর ঘর, কিন্তু কা’বার মর্যাদার জন্যই কা’বাকে আল্লাহর ঘর বা বাইতুল্লাহ বলা হয়।

৪. একজন রোযাদার ইচ্ছাপোষণ করলে লোকচক্ষুর অন্তরালে পানাহার করতে পারে, কিন্তু আল্লাহর ভয় ও ভালবাসার কারণে বিরত থাকে, এটা যেন বান্দাহ ও আল্লাহর মধ্যে গোপনীয় মধুর একান্ত সম্পর্ক, আল্লাহ একান্তভাবে ভালবাসার পুরস্কার দিবেন, তাই বলেছেন রোযা আমার জন্য।

 

সব মাখলুকের স্রষ্টা, বিশ্বজাহানের প্রতিপালক নিজেই পুরস্কার দিবেন, তখন কী পরিমান দিবেন, ইমাম আওযায়ী বলেন, আল্লাহ রোযাদারকে এমন প্রতিদান দিবেন যা মাপা হবেনা, ওজন হবেনা, হিসাব ছাড়াই অজস্র প্রতিদান দিবেন।
হে আল্লাহ, এমন রোযা রাখার তাওফিক দাও, যাতে তোমার হাত থেকে প্রতিদান নিতে পারি। আমীন। লেখক: মুহাদ্দিস ও কলামিস্ট, সিলেট।

এখানে ক্লিক করে শেয়ার করুণ